5 April 2017

বৃষ্টি তোকেই

বৃষ্টি তোর ফোন নম্বর দিস…
যেসব চিঠি উঁকি ঝুঁকি দিত বুক পকেটের ছেঁড়া জানলায়,
তারা ভিজে গেছে।
লেখা আবছায়া তোর ওড়নার এক ঝাপটায়
না বলা কথারা দরজা দিয়েছে, জানলাটা তবু খোলেনি..
কথা ছিল তোর ভিজিয়ে দেওয়ার, আজকেও তারা ভোলেনি...

বৃষ্টি তোর ফোন নম্বর দিস…
যেদিন রাতে ছাদের ঘরের জানলায় তুই এলি,
তোর গায়ের গন্ধে কি যে ছিল!
ফাঁকা বাসস্ট্যান্ড–ভেজা জামা দুটো জানে,
আর জানে, যারা বৃষ্টিতে ভিজেছিল।


বৃষ্টি তোর ফোন নম্বর দিস…
কলেজ-ফেরত, তখন বিকেল;
ভিজলাম খালি গায়ে,কাদা মাঠের উন্মত্ততা মেখে।
শুকনো শহরে তোকে খুঁজেছিলাম,
আকাশের কোনে...মেঘ করে এল দেখে।

বৃষ্টি না হয় ঠিকানাই দিস...
মেঘের খামে তোকে কিছু জিনিস পাঠিয়ে
দেব খন,
কাগজের নৌকো, তোকে লেখা চিঠিগুলো-
আমার মন।

ঘাসফুলেদের সাথে

তুমি সারাক্ষন খুঁজে গেছো দুপুর সন্ধ্যে বেলায়, সময় দাওনি ঘাস ফুলেদের। লিলুয়া বাতাস হয়ে ছুয়ে গেছো দূর আরো দূর বেপাড়ায়… ফিরে গেছে সে নদী...